1. admin@dainikbirchattala.com : admin :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫২ পূর্বাহ্ন
নোটিশ
দৈনিক বীর চট্টলাতে (অনলাইন পোর্টাল) চট্টগ্রাম জেলাসহ সকল উপজেলা এবং কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা ছবিসহ বায়োডাটা ইমেইল করুনঃ বার্তা কক্ষ ও যোগাযোগ: ০১৮৩৫০৬৪০৪০ ইমেইলঃ dainikbirchattala2020@gmail.com
প্রধান খবর
চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৮ জনের মৃত্যু, বেশি শনাক্ত হাটহাজারীতে চট্টগ্রামে করোনার সংক্রমণের হার কিছুটা নিম্নগামী হলেও মৃত্যুর হার প্রায় অপরিবর্তিত। চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত ৭৭২ জন, মৃত্যু ১২ গ্রাফিক্স ডিজাইনার নিয়োগ দিবে আকিজ গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরি লিমিটেড আনোয়ারায় ভারী যান চলাচলে সড়কের বেহাল অবস্থা ll দৈনিক বীর চট্টলা চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৩ জনের মৃত্যু,৫০৭ জনের করোনা শনাক্ত নগরীতে পুলিশের তৎপরতায় হত্যার হাত থেকে রক্ষা পেল একটি পরিবার ll দৈনিক বীর চট্টলা সীতাকুণ্ডে র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে হত্যা মামলার আসামি নিহত চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৯২৮ জন, ৮ জনের মৃত্যু চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত ১১১৪ জন, ১৭ জনের মৃত্যু

পর পর ২ কন্যা সন্তান জন্ম দেয়ায় ঘর ভাঙল মাহমুদার

  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

পর পর ২ কন্যা সন্তান জন্ম দেয়ায় সংসার ভেঙে গেছে দুর্গাপুর উপজেলার চকলেঙ্গুরা গ্রামের গরিব কৃষক মো. আবদুল মজিদের মেয়ে মোছা. মাহমুদা আক্তারের (২০)। বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের এমনটাই জানান ইউএনও ফারজানা খানম।

জানা গেছে, মাহমুদার সঙ্গে গৌরীপুর উপজেলার পাঁচাশি গ্রামের মো. আবুল কালাম মণ্ডলের ছেলে মো. ফরহাদ হোসাইনের ৪ বছর আগে উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয়। বিয়ের বছর শেষ না হতেই এক কন্যা সন্তানের জন্ম হওয়ায় তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার শুরু করে। পরের বছর আবার অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে আল্ট্রাসনোগ্রাফির রিপোর্টে কন্যা সন্তান হবে জেনে তাকে মারধর করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

পরবর্তীতে এক কন্যা সন্তান জন্ম নেয়ার পরে স্বামী বা তার বাড়ি থেকে কেউ কোনো খোঁজ নিতে আসেনি। এ আবস্থায় মাহমুদা বাধ্য হয়ে দুর্গাপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ফারজানা খানম বরাবর অভিযোগ দায়ের করলে স্থানীয় ব্র্যাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচির কর্মকর্তা কাজল দেবনাথের সহায়তায় স্বামীর বিরুদ্ধে দেনমোহর ও ভরণপোষণ বিষয়ক একটি পারিবারিক অভিযোগ গ্রহণ করা হয়।

ইউএনও আরও জানান, পরবর্তীতে ব্র্যাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচি এডিআরের মাধ্যমে মাহমুদাকে তার দেনমোহর বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও ভরণপোষণ বাবদ ৩০ হাজার টাকা নগদ আদায় করে দেয়। এছাড়া মাহমুদার দুই কন্যা সন্তানের ভরণপোষণ বাবদ প্রতি মাসে ৫ হাজার করে টাকা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

এই কেটাগরির আরো খবর
© All rights reserved © 2021 dainikbirchattala.com
Theme Customized By BreakingNews